কিম কি-দুক: একজন সেলুলয়েডের কবি

কিম-কি-দুক:-একজন-সেলুলয়েডের-কবি

একদিন সকালে উঠে তার মনে হয়েছিল, তিনি পরিচালক হবেন। ব্যস। এটুকুই। ৩০ বছর বয়সের আগে পর্যন্ত কোনো সিনেমাই দেখেননি তিনি। তার প্রথম দেখা সিনেমা ছিল “সাইল্যান্স অফ দ্যা ল্যাম্ব”। এন্থনি হপকিন্সের এই সিনেমা আর আরেকটি ফ্রেঞ্চ সিনেমা “দ্যা লাভার্স অন দ্যা ব্রিজ” তার মাথায় সিনেমার পোকা ঢোকায়। তিনি আরো বলেন, তিনি কখনো সিনেমা নিয়ে গভীর কোনো পড়াশুনা করেননি। সিনেমা বানানো শিখেছেন  জীবন থেকে। আজকালকার নির্মাতারা যেমন নিজেদের একটি সিনেম্যাটিক কাঠামোতে আবদ্ধ করে রাখে, তার কারণ হতে পারে তাদের প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষা, যা কিমের ছিলনা।

Total
0
Shares
মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Previous Post
ইউরো-জয়ের-দৌড়ে-যারা-এগিয়ে:-এমবাপের-ফ্রান্স

ইউরো-জয়ের দৌড়ে যারা এগিয়ে: এমবাপের ফ্রান্স

Next Post
ইউরো-২০২০:-গ্রুপ-‘এফ’-ব্যবচ্ছেদ

ইউরো ২০২০: গ্রুপ ‘এফ’ ব্যবচ্ছেদ

Related Posts
রবার্ট-এনকে:-এক-জার্মান-গোলকিপারের-ট্র্যাজিক-আখ্যান

রবার্ট এনকে: এক জার্মান গোলকিপারের ট্র্যাজিক আখ্যান

কিন্তু তিনি সেদিন মিথ্যে বলেছিলেন। সেই মঙ্গলবার হ্যানোভারে কোনো ট্রেইনিং সেশন ছিল না। বাড়ি থেকে বের হয়ে তিনি সারাদিন…
সব পড়ুন
বাংলা-সাহিত্যের-ইতিহাসে-অন্ধকার-যুগ-কি-আসলেই-ছিল?

বাংলা সাহিত্যের ইতিহাসে অন্ধকার যুগ কি আসলেই ছিল?

তবে কোনো কোনো পণ্ডিত আবার বাংলা সাহিত্যের অন্ধকার যুগ সম্পর্কে দ্বিমত পোষণ করেন। তাদের মতে, সে সময়ে খুব…
সব পড়ুন
ফ্রন্টলাইন:-নির্যাতিত-এক-জাতির-জেগে-ওঠার-গল্প

ফ্রন্টলাইন: নির্যাতিত এক জাতির জেগে ওঠার গল্প

বর্তমান সময়ে বাংলাদেশের চলমান মূল একটি সমস্যা রোহিঙ্গা ইস্যু। বইটিতে লেখক কাল্পনিকভাবেই খুব সুন্দর করে শরণার্থী রোহিঙ্গা জাতির…
সব পড়ুন